শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বিশ্বম্ভরপুরে বিদ্যুৎ ছাড়াই হিমাগার অবৈধ দখলে অস্তিত্ব সংকটে বিশ্বম্ভরপুরের ধামালিয়া নদী এসএসসি ও সমমানে পাসের গড় হার ৯৩.৫৮ যাদুকাটা বালু মহালের সীমানা নির্ধারণ টেকনোলজিস্ট সাইফুল হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন হাওরের পরিবেশ বজায় রেখেই হাওরের উন্নয়ন করতে হবে -এমপি মানিক ধর্মপাশায় সেচ প্রকল্পে বাধা: শতাধিক একর জমি আবাদে অনিশ্চয়তার আশঙ্কা বিশ্বম্ভরপুরে নান্দনিক স্বপ্ন’র শীতবস্ত্র বিতরণ বেলটা সিলেট চ্যাপ্টার এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভা: ইংরেজি শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করার অঙ্গীকার  বিশ্বম্ভরপুরে কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকি রোধে গণসচেতনতা মূলক প্রচারণা
সিলেটে ‘ইনোভেটর’ এর বইপড়া উৎসব

সিলেটে ‘ইনোভেটর’ এর বইপড়া উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদক: মুক্তিযুদ্ধ আর বাংলাদেশকে প্রাণ দিয়ে ভালোবাসার দীপ্র অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে সিলেটে উদ্বোধন হয়েছে ‘ইনোভেটর’ আয়োজিত বইপড়া উৎসবের। আজ শনিবার (৮ ডিসেম্বর) সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সিলেটের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৮ শতাধিক শিক্ষার্থীদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের বই তুলে দেয়ার মাধ্যমে তিন মাসব্যাপী এ উৎসবের সূচনা হয়। বই বিতরণের পূর্বে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বাঙালি ইতিহাসের এক হিরন্ময় অধ্যায়। সেই মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন আকাংখাকে বাস্তবে রূপ দিতে পারে বইপড়ুয়া তারুণ্য। একাত্তরের অর্জনকে সমুজ্জল ধারায় এগিয়ে নিতে প্রয়োজন জ্ঞান-নীতি ও নন্দন সমৃদ্ধ তরুণ প্রজন্ম আর বই হচ্ছে সেই প্রজন্ম গড়ার উৎকৃষ্ট মাধ্যম। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস না জেনে কেউ দেশপ্রেমিক হতে পারে না। দেশকে ভালোবাসতে হলে দেশের জন্ম ইতিহাস জানতে হয়। বক্তারা আরও বলেন, ‘ইনোভেটর’ এর বইপড়া উৎসব শেকড় সন্ধানী এক উৎসব। এটা কেবলই বই নয়, মুক্তিযুদ্ধের গৌরব উজ্জ্বল ইতিহাসকে আনন্দ-উচ্ছ্বাস নিয়ে পাঠের উৎসব। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণে বইপড়ার এই আনন্দযজ্ঞ নিঃসন্দেহে বড় আবদান রাখবে। মানুষের মুক্তির সংগ্রাম, মানুষের এগিয়ে যাওয়া প্রচেষ্টা কখনো ব্যর্থ হয় না। মুক্তিযুদ্ধের বই মানে বাঙালির দ্রোহ-সংগ্রাম আর ত্যাগের অনুপম দলিল। তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বক্তারা বলেন, জ্ঞানের আলোয় তারুণ্যকে আলোকিত করার যে স্বপ্ন ‘ইনোভেটর’ দেখছে তা তো কেবল তাদেরই স্বপ্ন নয় বরং দেশপ্রেমিক সকল মানুষেরই স্বপ্ন। আজকে যারা তরুণ তারাই তো আগামীর বাংলাদেশ। সত্য ইতিহাস জেনে তাই তাদের হতে হবে সত্যিকারের দেশপ্রেমিক নাগরিক। সকল অন্ধকারের বিরুদ্ধে তাদের জ্ঞানের মশাল জ্বালিয়ে রাখতে হবে। তাদের মনে রাখতে হবে শেষ পর্যন্ত আলো বেঁচে থাকে, অন্ধকার নয়। মুক্তিযুদ্ধ আমাদের সেই আলোর পথের সন্ধান দেয়। মুক্তিযুদ্ধের বই আমাদের সাহসী করে তুলে জীবনকে এগিয়ে নেওয়ার প্রেরণা দেয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ‘ইনোভেটর’ এর মূখ্য সঞ্চালক সিটি কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট লুৎফুর রহমান, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ও দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতিক। অনুষ্ঠানে ‘ইনেভেটর’ এর একযুগের পথচলা নিয়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নির্বাহী সঞ্চালক, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক প্রণব কান্তি দেব। বিশিষ্ট রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী অনিমেষ বিজয় চৌধুরী’র পরিচালনায় এবং ‘ইনোভেটর’ এর সমন্বয়ক আশরাফুল ইসলাম অনির সার্বিক তত্ত্বাবধানে গীত বিতান ও অন্বেষা শিল্পীগোষ্ঠীর শিল্পীদের শত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া বইপড়া উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এক পর্যায়ে রূপ নেয় লাল সবুজের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের অনুষ্ঠানে। ‘ইনোভেটর’ এর সদস্য জান্নাতুল নাজনীন আশা ও সুমিতা দাস এর যৌথ উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন, ‘ইনোভেটর’ এর সমন্বয়ক প্রভাষক সুমন রায়, বইপড়া উৎসবে অংশ নেয়া শিক্ষার্থী সৈয়দা জামিলা বকুল জুঁথি ও জোবায়দা আহমদ। আলোচনা শেষে স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের হাতে আনিসুল হকের ‘একাত্তরের একদল দুষ্টু ছেলে’ এবং কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আমজাদ হোসেনের ‘উত্তরকাল’ গ্রন্থগুলো তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে সিলেটের শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি অঙ্গনের বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন




 

 

 

 

© 2017-2021 All Rights Reserved Amadersunamganj.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!